রাজধানীতে সড়ক দুর্ঘটনায় আরও এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু

রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় মাহাদী হাসান লিমন (২২) নামে গ্রীন ইউনিভার্সিটির এক ছাত্র নিহত হয়েছে। লিমন ভার্সিটির টেক্সটাইল বিভাগের ৪র্থ বর্ষে পড়তেন।

শনিবার (৪ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে নিহত লিমনের এই পরিচয় জানান তার সহপাঠীরা।

খালিদ মাহমুদ টুটুল নামে এক সহপাঠী জানান, শেওড়াপাড়ার গ্রীন ইউনিভার্সিটিতে পড়েন তারা। লিমন থাকতেন উত্তরা ১১ নম্বর সেক্টরে। শুক্রবার রাতে গ্রামের বাড়ি জয়পুরহাট থেকে তার মা ঢাকায় আসছিলেন। তখন লিমন ঝিগাতলায় খালার বাসায় ছিলেন। মাকে আনার জন্য খালার বাসা থেকে নিজের মোটরসাইকেলে নিয়ে উত্তরাতে যাচ্ছিলেন লিমন।

টুটুল জানান, ’শুনতে পেয়েছি একটি লরি পেছন থেকে লিমনকে ধাক্কা দেয়। এতে তিনি পিছলে পড়ে গেলে লরির চাকা তার মাথার উপর দিয়ে উঠে যায়। এতে তার মাথায় থাকা হেলমেটটিও গুড়িয়ে যায়।

এরআগে শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে বিমানবন্দর কাউলা পদ্মওয়েল আউট গোয়িংয়ে একটি লরির চাপায় গুরুতর আহত হন তিনি। সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যায় পুলিশ।

বিমানবন্দর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আসাদুজ্জামান শেখ জানান, রাতে মোটরসাইকেল চালিয়ে যাচ্ছিল ওই তরুণ। তখন লরির চাপায় আহত হয়। মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে রাত ৩টার দিকে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এসআই আরও জানান, ওই যুবকের কাছে থাকা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে স্বজনদের সাথে যোগাযোগ করে তার পরিচয় জানা যায়।

তার বাড়ি জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি উপজেলার দমদমা পশ্চিম গ্রামে। তার বাবার নাম মোফাজ্জল হোসেন। সূত্রঃ সময়টিভি। সম্পাদনা ম\হ। না ১২০৪\১৫

Related Articles